Breaking News

বৃষ্টিতে ভিজবে রাজ্যের এই ৫ জেলা, জানালো হাওয়া অফিস

শ্রাবণ মাস শেষে হতে চলল কিন্তু দক্ষিনবঙ্গে ভারী বৃষ্টির কোন দেখা নেই। এবছর এখনো অবদি ৪৭% বৃষ্টির ঘাটতি নিয়ে চলছে দক্ষিণবঙ্গ। যদিও মাঝে মাঝে বিক্ষিপ্ত ভাবে কয়েক পশলা বৃষ্টি হচ্ছে, কিন্তু তা বাতাসে জলীয়বাষ্প বাড়িয়ে দিচ্ছে। সকাল থেকে আকাশে মেঘের ঘনঘটা চলছে এবং দিনের শেষে দু-এক পশলা হালকা বৃষ্টি হয়ে তাপমাত্রা আরো বাড়িয়ে দিচ্ছে।

ফলে কলকাতা ও তার আশেপাশের এলাকাতে আদ্রতাজনিত অস্বস্তিতে হাকপাক অবস্থা মানুষের। যদিও আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, আজ বুধবার থেকে কলকাতাসহ আশেপাশের জেলাগুলিতে সকাল থেকেই আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে এবং বজ্রবিদ্যুৎসহ হালকা বৃষ্টিপাত হবে। এবং তার জেরে তাপমাত্রা আরেকটু বাড়তে পারে।

গতকাল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪.৩° সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের তুলনায় ২° সেলসিয়াস বেশি। পরিবেশে জলীয়বাষ্পের পরিমান বেশি থাকায় আদ্রতাজনিত অস্বস্তি অনুভূত হবে। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ ছিল ৮৯ শতাংশ। গত ২৪ ঘন্টায় বৃষ্টিপাত হয়েছে মাত্র ২.২ মিলিমিটার। কলকাতা অঞ্চলের বৃষ্টিপাতের পরিমান ছিল ৪০ মিলিমিটার। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা গেছে যে আগামী সপ্তাহ জুড়ে দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির পরিমাণ আরও কমবে।

ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা এখনই নেই। তবে বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম ও পুরুলিয়া জেলাতে হালকা থেকে মাঝারি মাপের দুয়েক পশলা বৃষ্টিপাত হতে পারে। দক্ষিণ ২৪ পরগনা, উত্তর ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় বজ্রবিদ্যুৎসহ হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। মূলত মৌসুমী অক্ষ রেখা দুর্বল থাকায় বৃষ্টির ঘাটতি রয়েছে। কিন্তু দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টি ঘাটতি থাকলেও উত্তরবঙ্গে স্বাভাবিক বৃষ্টি হয়েছে।

আবহাওয়া দপ্তরের মতে কালকের মতো আজ কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং, কালিম্পং এবং আলিপুরদুয়ারে বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। আপাতত আগামি গোটা সপ্তাহটাই উত্তরবঙ্গ ভারী বৃষ্টিতে ভিজবে। যেখানে গোটা দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির ঘাটতি ৪৭% রয়েছে সেখানে উত্তরবঙ্গে এখনো অবদি স্বাভাবিকের তুলনায় ৪ শতাংশ বেশি বৃষ্টি হয়েছে।

Check Also

আমাদের দেশেই বাজারে বি’ক্রি হচ্ছে “বর”! টা’কা দিয়ে বাড়িতে ও’ঠা’চ্ছে’ন বউরা

আজকাল আজব কত কিছুই ঘটছে এই দুনিয়ায়। সেরকমই একটা ঘটনা যা ভারতের মত জায়গায় শুনতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *